এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মেদিনীপুর > বিজেপি করার অপরাধে ৬৫ বছরের বৃদ্ধাকে মারধর করে প্রস্রাব খাওয়ানোর অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে!

বিজেপি করার অপরাধে ৬৫ বছরের বৃদ্ধাকে মারধর করে প্রস্রাব খাওয়ানোর অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে!

পশ্চিম মেদিনীপুরের দাঁতনে বিজেপি করার অপরাধে ৬৫ বছরের বৃদ্ধাকে মারধর করে প্রস্রাব খাওয়ানোর অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে! অভিযোগ অস্বীকার তৃণমূলের! বেশ কয়েকদিন ধরে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার দাঁতন থানার বিস্তীর্ণ এলাকার বিজেপি তৃণমূল সংঘর্ষ উত্তপ্ত ছিল, এবার তার রেশ কাটতে না কাটতে ফের একবার বিজেপির ৬৫ বছরের বৃদ্ধ মহিলা কর্মীকে মারধর করার অভিযোগ উঠল তৃণমূলের বিরুদ্ধে!

শুধু তাই নয় এই ঘটনার সঙ্গে স্থানীয় এক সিভিক ভলেন্টিয়ার যুক্ত রয়েছে এমনই অভিযোগ। এমনই এক ঘটনা ঘটলো পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার দাঁতন থানার বাসবনি এলাকায়। আহত বিজেপি মহিলা কর্মী কোকিলা ঘড়াই এর অভিযোগ, তৃণমূলের কিছু মহিলা আমার বাড়ির উপর চড়াও হয় এবং আমাকে বেধড়ক মারধর করতে থাকে। শুধু তাই নয় আমার বৌমাকে ও শারীরিক নির্যাতন করা হয়।

তিনি বিস্ফোরকভাবে জানান, আমি বাধা দিতে গেলে আমাকে বাইরে টেনে বেধড়ক মারধর করা হয়। পরে আমাকে পেচ্ছাপ খাওয়ানো হয়। স্থানীয় প্রত্যাখ্যদর্শীদের মতে, শুধু তাই নয় এরপর গোটা রাত বাইরে পড়ে থাকেন ওই বয়স্কা মহিলা! অবশেষে দাঁতন থানার পুলিশ এসে ওই বৃদ্ধা বিজেপি কর্মীকে উদ্ধার করে দাঁতন প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করা হয় বলে জানা গেছে।

যদিও এই ঘটনার অস্বীকার করেছেন তৃণমূলের 5 নম্বর অঞ্চল সভাপতি সুশান্ত কুমার ঘোষ। তাঁর বক্তব্য আমাদের শীর্ষ নেতৃত্বের কড়া নির্দেশ রয়েছে এলাকায় কোন রকম ভাবে অশান্তি সৃষ্টি না করার। এটা বিজেপির চক্রান্ত, এই ধরনের ঘৃণ্য ধরনের কাজ নিজেরাই করে তৃণমূলকে বদনাম করার চেষ্টা করছে।

অন্যদিকে স্থানীয় বিজেপি নেতা মৌসাব মল্লিক জানান, খড়্গপুর-সদর বিধানসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচন ভোটে জেতার পর থেকেই এলাকায় তাণ্ডব চালিয়ে বেড়াচ্ছে তৃণমূলের দুষ্কৃতী বাহিনীরা। তার এটা প্রতিফলন, এটা সমগ্র দাঁতন এলাকার লজ্জা। এটার আমরা সুবিচার চাইছি। সবমিলিয়ে উপনির্বাচনের পরে গোটা এলাকাতেই অশান্তির আবহ ক্রমশ বাড়ছে, যার জের থেকে রেহাই পাচ্ছেন না ৬৫ বছরের বয়স্কা মহিলাও!

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!