এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > দলের রাশ নিজের হাতে নিয়ে সামনে আনলেন 6 বিধায়ক ও 6 নেতা মন্ত্রীকে, বাকিদের মুখে লাগাম

দলের রাশ নিজের হাতে নিয়ে সামনে আনলেন 6 বিধায়ক ও 6 নেতা মন্ত্রীকে, বাকিদের মুখে লাগাম

এবারের লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল বাংলায় 42 টি আসনের মধ্যে 42 টি আসন দখল করবে বলে শ্লোগান দিলেও তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সেই স্লোগান বাস্তবে কোনো সফলতা দেখতে পায়নি। উল্টে 2014 সালে তৃণমূল যে 34 টি আসন পেয়েছিল, তা থেকে কমে এবার তারা মোটে 22 টি আসন পেয়েছে।

অন্যদিকে বিজেপি বাংলা থেকে 18 টি আসন দখল করেছে। আর বাংলায় এই ভরাডুবির পর দলীয় নেতৃত্বদের নিয়ে বৈঠক করে একাধিক জেলার সংগঠনে কাটছাঁট করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পাশাপাশি রাজ্যস্তরেও কিছু কিছু নেতার দায়িত্ব কমিয়ে দিয়েছেন তিনি। এমনকি মন্ত্রিসভাতেও যে সমস্ত মন্ত্রী নিজের এলাকায় লিড দিতে পারেননি, তাদের অনেকের কাছ থেকেই মন্ত্রিত্ব পদ কেড়েও নিয়েছেন তৃণমূল নেত্রী।

আর বাংলায় দলের কেন এই খারাপ ফলাফল হল, তা নিয়ে দলীয় স্তরে পর্যালোচনায় যেমন একাধিক জায়গায় নেতাদের ভাবমূর্তি নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে, ঠিক তেমনই সংবাদমাধ্যমে বেশ কিছু নেতাদের আলটপকা মন্তব্য দলের ভাবমূর্তি খারাপ করেছে বলেও মনে করছে তৃণমূল। আর তাই এবারে দলের নেতাদের কোনো বক্তব্য যাতে বিতর্ক তৈরি করতে না পারে, তার জন্য সর্বভারতীয় স্তরে দলের বক্তব্য সংবাদ মাধ্যমে তুলে ধরার জন্য একটি বিশেষ কমিটি তৈরি করে দিলেন তৃনমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

জানা গেছে, দিল্লি তথা জাতীয় মিডিয়ার জন্য সৌগত রায়, সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, কাকলি ঘোষ দস্তিদার, মহুয়া মৈত্র, ডেরেক ও ব্রায়েন এবং দীনেশ ত্রিবেদীর নাম রাখা হয়েছে। অন্যদিকে রাজ্যের জন্য তাপস রায়, ব্রাত্য বসু, মহুয়া মৈত্র, চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় এবং শুভেন্দু অধিকারীরা হয়েছেন।

মূলত সংবাদমাধ্যমে কোন বিতর্কে অংশ নেওয়া এবং দলের তরফে কোনো বিষয়ে প্রতিক্রিয়া দেওয়ার ক্ষেত্রেই এই কমিটি তৈরি করে দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এমনকি কমিটিতে থাকা এই সমস্ত ব্যক্তিদের বাইরে কোনো ব্যক্তি যদি কোনোরূপ বিতর্কিত মন্তব্য করে এবং পরে যদি তা তৃণমূলের ঘাড়ে পড়ে, তাহলে দল কোনোভাবেই দায় নেবে না বলেও দলীয় স্তরে বিজ্ঞপ্তি জারি করে দেওয়া হয়েছে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, বিভিন্ন জায়গায় তৃণমূলের নেতা নেত্রীদের লাগামহীন মন্তব্যই কিছুটা হলেও বিপাকে ফেলেছে দলকে। আর তাইতো অতীতের সেই ভুলকে শুধরে নেওয়ার জন্যই যে কোনো ক্ষেত্রে দলীয় তরফে বিবৃতি দেওয়ার জন্য ছয় সদস্যের কমিটি তৈরি করে দিলেন তৃণমূল নেত্রী বলে মত রাজনৈতিক মহলের।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!