এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > রাজীব কুমারকে সিবিআই জেরা গড়াল তৃতীয় দিনে, কুনাল ঘোষের হাতের ফাইল বাড়াচ্ছে রহস্য!

রাজীব কুমারকে সিবিআই জেরা গড়াল তৃতীয় দিনে, কুনাল ঘোষের হাতের ফাইল বাড়াচ্ছে রহস্য!

অনেক কাঠখড় পুড়িয়ে অবশেষে কলকাতার পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারকে সরাসরি জেরার সুযোগ পেয়েছে সিবিআই। মেঘালয়ের শিলংয়ে সিবিআইয়ের দপ্তরে সেই জেরা আজ নিয়ে তৃতীয় দিনে গড়াল। প্রথম দিন অবশ্য জেরা নয়, কার্যত রাজীব কুমারের ‘জবানবন্দি’ নিয়ে তা রেকর্ড করার কাজ চলেছে। তবে জেরার দ্বিতীয়দিন ছিল চমকে মোড়া। সকালেই, সারদা চিটফান্ড কেলেঙ্কারিতে এর আগে জেলে যাওয়া তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্যসভার প্রাক্তন সাংসদ কুনাল ঘোষকে হাজির হতে হয় সিবিআই দপ্তরে।

তবে, কুনাল ঘোষ ও রাজীব কুমারকে মুখোমুখি বসিয়ে জেরা করা হতে পারে, এটা অবশ্য প্রত্যাশিতই ছিল। গতকালের জেরার দ্বিতীয় পর্বে তা হয়েওছিল বলে জানা গেছে। তবে, আসল চমকটা ছিল যখন রোজভ্যালি তদন্তের তদন্তকারী অফিসারও রাজীব কুমারকে জেরা করার জন্য সিবিআইয়ের টিমে যোগদান করেন। কেননা, রাজীব কুমারকে মোটামুটি সারদা চিটফান্ড কেলেঙ্কারিতেই বিভিন্ন প্রশ্ন করা হবে, এটাই প্রত্যাশিত ছিল। কিন্তু, রোজভ্যালি যুক্ত হওয়াতে এই তদন্তের অভিমুখ আরও চওড়া হল বলে জানা গেছে।

হোয়াটস্যাপের কিছু টেকনিক্যাল অসুবিধার জন্য আমরা ধীরে ধীরে হোয়াটস্যাপ সাপোর্ট বন্ধ করে দিয়ে, পরবর্তীকালে শুধুমাত্র Telegram অ্যাপেই নিউজের লিঙ্ক শেয়ার করব

তাই আপনাদের কাছে একান্ত অনুরোধ – প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর নিয়মিত ভাবে পেতে হলে Telegram অ্যাপটি ইনস্টল করুনআমাদের Telegram গ্রূপে যোগ দিন। যাঁরা Telegram-এ নতুন, ভয় পাবেন না – এটি হোয়াটস্যাপের মতোই সমস্ত ফিচার যুক্ত এবং আরো আরো সহজে ব্যবহার করা যায়।

যোগ দিন আমাদের Telegram Group – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে
আর এখনও যাঁরা আমাদের WhatsApp Group-এ যোগ দিতে চান, তাঁরা ক্লিক করুন এই লিঙ্কে (কিন্তু, মনে রাখবেন এই হোয়াটস্যাপ সাপোর্ট আমরা হয়ত খুব বেশিদিন আর চালু রাখব না)

এদিকে, প্রথম দিনের জেরাতে রাজীব কুমারকে সিবিআই দপ্তরে থাকতে হয়েছিল প্রায় ৯ ঘন্টা। কিন্তু গতকাল, তাঁকে সিবিআই দপ্তরে প্রায় ১১ ঘন্টারও বেশি সময় থাকতে হয়েছিল বলে জানা গেছে। সবথেকে বড় কথা, এই জেরা নিয়ে চূড়ান্ত গোপনীয়তা বজায় রেখেছে সিবিআই, ভেতরের কোনো তথ্যই প্রায় সংবাদমাধ্যমের হাতে আসছে না। তবুও যা জানা যাচ্ছে, রাজীব কুমারকে একই প্রশ্ন ঘুরিয়ে ফিরিয়ে বিভিন্ন অফিসার এমনভাবে করছেন, যাতে কোথাও উত্তর দেওয়ার ক্ষেত্রে কোনো বিচ্যুতি হলেই তা ধরা পড়বে। এ ছাড়াও, কখনও প্রশ্নের গতি বাড়িয়ে, কখনও বা তা শ্লথ করে – রাজীব কুমারের ধৈর্যের পরীক্ষাও চলছে বলে জানা গেছে।

সবথেকে বড় কথা, এই জেরার পুরো প্রক্রিয়াটিই ভিডিও রেকর্ডিং করা হচ্ছে। আজ তৃতীয় দিনে জেরা গড়ালেও, আজই জেরার হাত থেকে রাজীব কুমার মুক্তি পাবেন – এমন কোনো ইঙ্গিত এখনও সিবিআইয়ের তরফে পাওয়া যায় নি। প্রসঙ্গত, রাজীব কুমার ও তাঁর আইনজীবী প্রথম দিনেই মাধ্যমিক পরীক্ষা ও রাজ্যের আইনশৃঙ্খলার কথা তুলে আজকের মধ্যেই জেরাপর্ব শেষ করে ফেলার আবেদন করেছিলেন। সেই ব্যাপারে, সিবিআই হ্যাঁ বা না কিছুই জানায়নি। এমনকি, রাজীব কুমার প্রশ্ন ছোট করার আবেদন করলে, সেটাও গ্রাহ্য হয় নি।

এদিকে, আজ কুনাল ঘোষকেও সিবিআই দপ্তরে ডাকা হয়েছে, তিনি সিবিআই দপ্তরে পৌঁছেছেন হাতে একটি ফাইল নিয়ে। যে ফাইল ঘিরে শুরু হয়েছে তীব্র জল্পনা। কেননা এর আগে তিনি সিবিআইকে ৯১ পাতার একটি দীর্ঘ চিঠি লেখেন, যেখানে নাকি অনেক প্রভাবশালী সম্পর্কে বিস্তারিত লেখা আছে। অন্যদিকে, তাঁর বাড়ি থেকে ‘সিজ’ করা অনেক কিছুই ‘সিজার লিস্টে’ রাখা হয় নি বলেও জানিয়েছিলেন কুনাল ঘোষ – আর তাই, সব মিলিয়ে ক্রমশ জমে উঠছে সিবিআই দপ্তরে রাজীব কুমার পর্ব।

Top
Close
error: Content is protected !!