এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > তৃণমূলের প্রার্থী তালিকার দিনেই দিল্লিতে তিন হেভিওয়েটকে গেরুয়া শিবিরে এনে খেলা জমালেন মুকুল রায়

তৃণমূলের প্রার্থী তালিকার দিনেই দিল্লিতে তিন হেভিওয়েটকে গেরুয়া শিবিরে এনে খেলা জমালেন মুকুল রায়

বিজেপিতে যোগ দিয়েই একদা রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের সেকেন্ড ইন কম্যান্ড মুকুল রায় বলেছিলেন, সঠিক সময়ে সঠিক সুযোগমত তিনি প্রমান করে দেবেন তৃণমূল কংগ্রেসের সংগঠন আদতে ‘উইয়ের ঢিপি’। পরবর্তীকালে তিনি দাবি করেন, বাংলায় তৃণমূল কংগ্রেসের ‘অত্যাচারের’ হাত থেকে বাঁচতে শুধু তৃণমূল কংগ্রেসের নেতারাই নন, অন্যান্য দলের নেতারাও গেরুয়া শিবিরে আসার জন্য লাইন লাগিয়ে দিয়েছেন। কিন্তু, বিজেপিতে গেলেই মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়ে দেওয়া হবে বলে আপাতত তাঁরা আসছেন না।

একই সঙ্গে মুকুলবাবু অত্যন্ত দৃঢ়তার সঙ্গে জানান, একবার নির্বাচনটা ঘোষণা হতে দিন, দেখবেন বিজেপিতে যোগ দেওয়ার লাইন পরে যাবে। গত পরশু নির্বাচন ঘোষণা হয়ে দেশজুড়ে আদর্শ নির্বাচনী বিধি চালু হয়ে গেছে, আর দিল্লিতে বসে নিজের কাজ শুরু করে দিয়েছেন মুকুল রায়। গতকাল তাঁর হাত ধরে দুই প্রদেশ কংগ্রেস নেতা ও এক তৃণমূল নেত্রী বিজেপিতে যোগদান করেন। আর আজ তো দিল্লির বুকে ‘ধামাল’ করে দিলেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়। তাঁর হাত ধরে একইসঙ্গে বিজেপিতে যোগ দিলেন এক সাংসদ ও দুই বিধায়ক।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

আজ দিল্লিতে মুকুল রায় ও কৈলাশ বিজয়বর্গীয়র হাত ধরে বিজেপিতে নাম লেখালেন, বোলপুরের তৃণমূল কংগ্রেসের বহিস্কৃত সাংসদ অনুপম হাজরা, হাবিবপুরের তিনবারের সিপিএম বিধায়ক খগেন মুর্মু ও বাগদার প্রাক্তন তৃণমূল কংগ্রেস ও বর্তমান কংগ্রেস বিধায়ক দুলাল বর। প্রসঙ্গত, আজ তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী তালিকা ঘোষিত হয়, যা গতকালই তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছিলেন। যা শুনে বিজেপি নেতা কৈলাশ বিজয়বর্গীয় দাবি করেছিলেন – কাল বহত বড়া ধামাকাদার জয়েনিং হোনেওয়ালা হ্যায়।

আর তাই, নির্বাচনী নির্ঘন্ট প্রকাশ হতেই মুকুল রায় ও কৈলাশ বৈজয়বর্গীয় প্রমান করে দিচ্ছেন, এতদিন তাঁরা যা বলে এসেছেন তার কোনোটাই ‘ফাঁকা আওয়াজ’ নয়! নির্বাচন ঘোষণা হতেই বাংলা রাজনীতির রথী-মহারথীরা সব একে একে পা বাড়াচ্ছেন গেরুয়া শিবিরে। সবথেকে বড় কথা খগেন মুর্মুকে দলে যোগ দেওয়ার প্রস্তাব তৃণমূল কংগ্রেসও দিয়েছিল – অন্যদিকে, দুলাল বরকে তৃণমূল কংগ্রেস কার্যত ‘ঘরের ছেলে’ আখ্যা দিয়েছিল। কিন্তু তৃণমূল কংগ্রেসের এই দুই মুখের গ্রাসই কেড়ে নিয়ে ভোট রাজনীতি জমিয়ে দিলেন মুকুল রায়। এখন দেখার, আগামী কয়েকদিনে আরও কি কি চমক তাঁর থলি থেকে বেরোয়।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!