এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > শাসকদলের সংখ্যালঘু ভোটে বড় থাবা বসিয়ে তিন সভাপতি সহ শতাধিকের গেরুয়া যোগ

শাসকদলের সংখ্যালঘু ভোটে বড় থাবা বসিয়ে তিন সভাপতি সহ শতাধিকের গেরুয়া যোগ

শাসকদলকে বড় ধাক্কা দিয়ে তাদের শক্তঘাঁটি বলে পরিচিত গঙ্গারামপুরের তিন বুথ সভাপতি সমেত শতাধিক সংখ্যালঘু কর্মী-সমর্থিককে দলে টেনে নিলো বিজেপি। জানা গেছে এদিন একটি সভা অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এই যোগদান সম্পন্ন হয়। এদিন তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেন নন্দনপুর পঞ্চায়েতের উত্তর বজরাপুকুর-এর বুথ সভাপতি রাকেশ ভুঁইমালী, সহরপাড়া-র বুথের সভাপতি সামাদ মিয়াঁ ,ও এছাড়া শিবিরপাড়া বুথের সভাপতি আব্দুল লতিফ সরকার। এঁদের সাথে এঁদের প্রায় তিন শতাধিক অনুগামীও তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে এদিন যোগ দেন। এনাদের হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন মাইনোরিটি মোর্চার দক্ষিণ দিনাজপুরের সাধরণ সম্পাদক রাহুল মন্ডল ও বিজেপির গঙ্গারামপুর মন্ডলের সভাপতি সনাতন কর্মকার।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এদিন বিজেপিতে যোগ দিয়ে রাকেশ ভুঁইমালী একরাশ ক্ষোভ নিয়ে অভিযোগ করে বলেন যে রাজ্যে তৃণমূল যবে থেকে ক্ষমতায় এসেছে তার পর থেকে দলে বহিরাগতরা ঢুকে পড়তে শুরু করেছে আর এর পর থেকেই আদি তৃণমূলের কাউকে আর গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে না। সভায় তৃণমূলের নেতা মন্ত্রীরা সংখ্যালঘুদের উন্নয়নের গালভরা বক্তব্য রাখলেও কাজের কাজ কিছু হচ্ছে না। আর তাই এই সব নানা কারণে আমরা সদলবলে তৃণমূলের সঙ্গ ত্যাগ করে মোদীজির হাত শক্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এদিকে বিজেপির রাহুল মন্ডল জানান কেন্দ্রে তাঁদের সরকারের চার বছরের সাফল্য ও বিশেষ করে উন্নয়ন মূলক প্রকল্পগুলি সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষজকে বিজেপি মুখী করেছে। তাই শাসকদলের অত্যাচার দুর্নীতি তোলাবাজির বিরুদ্ধে মানুষ সোচ্চার হচ্ছেন। তিনি আরো দাবি করে বলেন যে আগামীদিনে রাজ্যের প্রায় সমস্ত সমস্ত ব্লকেই সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের কয়েক হাজার মানুষ গেরুয়া শিবিরে যোগ দিতে চলেছেন। কেউ আর থাকবে না তৃণমূলে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!