এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > উত্তরবঙ্গে গেরুয়া শিবিরের শক্তিবৃদ্ধি, বাম-কংগ্রেস-তৃণমূল ছেড়ে আড়াই হাজার কর্মীযোগ বিজেপিতে

উত্তরবঙ্গে গেরুয়া শিবিরের শক্তিবৃদ্ধি, বাম-কংগ্রেস-তৃণমূল ছেড়ে আড়াই হাজার কর্মীযোগ বিজেপিতে

পঞ্চায়েত নির্বাচনের পর রাজ্যজুড়ে শক্তিবৃদ্ধি করেই চলেছে গেরুয়া শিবির। মুকুল রায় তৃণমূল কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করেই ঘোষণা করেছিলেন তাঁর পুরোনো দলের সংগঠন নাকি ‘ঝুরঝুর’ করে ভেঙে পড়বে, কিন্তু সে অর্থে কোন বড় মাপের নেতা এখনো গেরুয়া শিবিরে নাম লেখাননি। উল্টে বিভিন্ন বিরোধী দলের হেভিওয়েট বিধায়ক বা নেতারা নাম লেখাচ্ছেন ঘাসফুল শিবিরেই। তবুও নীচুতলায় বিভিন্ন দল ভেঙে গেরুয়া শিবিরে যোগদানের প্রবণতা বেশ লক্ষ্যণীয়। এমনকি সেই প্রবণতা থেকে বাইরে থাকছেন না রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের নীচুতলার নেতা-কর্মীরাও।

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

আর সেই প্রবণতাকেই আরো দৃঢ় করে দক্ষিণ দিনাজপুরের কুশমণ্ডিতে জেলা বিজেপি সভাপতি শুভেন্দু সরকার, রাজ্য সংখ্যালঘু মোর্চার সহ সভাপতি মাফুজা খাতুন, প্রাক্তন জেলা সভাপতি বিশ্বনাথ পালের হাত ধরে সিপিআইএম, আরএসপি, কংগ্রেস ও তৃণমূল কংগ্রেস ছেড়ে প্রায় ২,৫০০ জন কর্মী নাম লেখালেন গেরুয়া শিবিরে। দক্ষিণ দিনাজপুর বিজেপি জেলা সভাপতি শুভেন্দু সরকার এই যোগদান প্রসঙ্গে বলেন, পঞ্চায়েতের ফলেই প্রমাণিত এই রাজ্যে ক্ষমতা বৃদ্ধি করছে বিজেপি, লোকসভা ভোট আরো ভালো ফল করাই এখন প্রধান লক্ষ্য। তাই সংগঠনকে শক্তিশালী করতে বিভিন্ন রণকৌশল নেওয়া হচ্ছে, ফলে এতদিন বিরোধী রাজনীতি করা কর্মী-সমর্থকদের মনে বিজেপি নিয়ে প্রবল আশা জাগছে। কুশমণ্ডিতে একটি পথসভায় বিভিন্ন দল ছেড়ে প্রায় ২,৫০০ জন কর্মী যোগ দিয়েছেন, আগামীদিনে আরও অনেকে যোগদান করবেন।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!