এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > । ২৫ বছরের ‘মৌরসীপাট্টা’ ভেঙে শেষ বামপন্থী ‘তালুক’ আনুষ্ঠানিকভাবে তৃণমূলের হাতে

। ২৫ বছরের ‘মৌরসীপাট্টা’ ভেঙে শেষ বামপন্থী ‘তালুক’ আনুষ্ঠানিকভাবে তৃণমূলের হাতে

রাজ্যের সদ্য সমাপ্ত ত্রিস্তরীয় পঞ্চায়েত নির্বাচনের ব্যাপক সাফল্যের পরে মালদহ জেলায় দলের সাফল্যের তালিকায় সংযোজিত হলো অপর একটি নাম। তৃণমূল কংগ্রেসের অধীনে এলো কেন্দ্রীয় সমবায় ব্যাঙ্ক। পরাজিত হতে পারে এই আশঙ্কায় এই ব্যাঙ্কের পরিচালন সমিতি থেকে বাম শিবির সরে দাঁড়িয়েছে বলে জানা গিয়েছে। ফলে দীর্ঘ ২৫ বছর পরে কেন্দ্রীয় সমবায় ব্যাঙ্কের পরিচালনা ক্ষমতায় আসছে কোনো দক্ষিণপন্থী দল। ১৫ই জুলাই রবিবার কেন্দ্রীয় সমবায় ব্যাঙ্ক পরিচালনার দায়িত্ব নেবে তৃণমূল কংগ্রেস।

রাজ্যের শাসক দলের গোপণ সূত্রে জানা গিয়েছে প্রথম বোর্ড মিটিংয়ের পরেই বোর্ডের চেয়ারম্যান পদের নির্বাচনের প্রস্তুতি শুরু হবে। ওই পদে মনোনীত হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে দলের অন্যতম কার্যকরী জেলা সভাপতি সুমালা আগরওয়ালা। সেক্ষেত্রে তিনিই প্রথম কেন্দ্রীয় সমবায় ব্যাঙ্ক স্থাপনের পরে দক্ষিনপন্থী চেয়ারম্যান হবেন। উল্লেখ্য কেন্দ্রীয় সমবায় ব্যাঙ্কে আসন ১২টি। তৃণমূল কংগ্রেস সবকটি আসনে প্রার্থী মনোনয়ন করেছে। সিপিএম দলের পক্ষ থেকে প্রথম দিকে মাত্র পাঁচটিতে মনোনয়ন দিলেও অল্প সময়ের মধ্যেই তা প্রত্যাহার করে নেয়।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

 এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

জানা যাচ্ছে অনেক আগেই এই ব্যাঙ্কের নির্বাচন হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু পরাজিত হতে পারে এই আশঙ্কায় সিপিএম দলের তরফ থেকে নির্বাচনের জন্যে কোনো উদ্যোগ নেওয়া হয়নি। যদিও বাম শিবিরের শরিক দলের দাবি একরকম বল্প্রয়গ করেই তাঁদের প্রার্থীদের মনোনয়ন পত্র খারিজ করে দিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। কেন্দ্রীয় সমবায় ব্যাঙ্কের চেয়ারম্যান পদে কে মনোনীত হতে পারেন সেই প্রশ্নের জবাবে জেলা তৃণমূলের কার্যকরী সভাপতি সুমালা আগরওয়ালা বললেন, “চেয়ারম্যান পদে কে বসবেন তা দল ঠিক করবে। তবে দল যদি দায়িত্ব দেয় ব্যাঙ্ককে সাধারণ কৃষকের প্রয়োজনে ব্যবহার করব।”

এই সমবায় নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টায় দীর্ঘদিন ধরে নিয়োজিত ছিলেন তৃণমূল যুব কংগ্রেসের জেলা সভাপতি তথা রাজ্য কোর কমিটির আমন্ত্রিত সদস্য অম্লান ভাদুড়ি। এই ব্যাঙ্ক তৃণমূল কংগ্রেসের অধীনে আসার পরে তিনি নিজের প্রতিক্রিয়া জানিয়ে বললেন, ” বহুবছর ধরে জেলার কেন্দ্রীয় সমবায় ব্যাঙ্ককে সামনে রেখে বামেরা এখানে রাজনীতি করেছে। সমবায়ের অধীনে থাকা মানুষদের সুবিধা অসুবিধা সেভাবে গুরুত্ব পায়নি। সেই মৌরসীপাট্টা ভাঙার জন্যে আমরা জনমত গড়ছিলাম। অবশেষে তা সফল হয়েছে। মালদহে বামেদের শেষদূর্গ মুছে গেল। এই প্রথমবার অবামপন্থী বোর্ড গঠন হচ্ছে তাই নয়, প্রথমবারের জন্যে তৃণমূল কংগ্রেসের চেয়ারম্যান হবে। ” অন্যদিকে সিপিএমের জেলা সম্পাদক অম্বর মিত্র শাসক দলের কেন্দ্রীয় সমবায় ব্যাঙ্কের কার্যক্ষমতা অধিকার প্রসঙ্গে বললেন, ” ভিত্তিহীন অভিযোগ। তৃণমূলই নির্বাচনের নামে প্রহসন করেছে। আমাদের প্রার্থীদের ওরা জোর করে তুলে দিয়ে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বোর্ড দখল করেছে।”

Top
error: Content is protected !!