এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > ২০২১ এর ভোটে বিধায়ক পদ নিয়ে বিস্ফোরক বিজেপি নেত্রী, জেনে নিন

২০২১ এর ভোটে বিধায়ক পদ নিয়ে বিস্ফোরক বিজেপি নেত্রী, জেনে নিন

কিছুদিন আগেই লোকসভা নির্বাচন সমাপ্ত হয়েছে। যে নির্বাচনের ফলাফলে দেখা গেছে রাজ্যের শাসকদল তৃনমূলকে অনেকটাই বেগ দিয়েছে বিজেপি। একলাফে নিজেরা ১৮ টি আসন দখল করে তৃনমূলকে 22 টিতে নামিয়ে দিয়েছে। আর তৃনমূলের ভরাডুবির পরই দিকে দিকে শাসকদলের জনস্রোত হারাতে শুরু করে বলে দাবি বিশ্লেষকদের।

আর এই পরিস্থিতিতে যখন সামনেই বিধানসভা নির্বাচন, ঠিক তখনই ২০২১-এর তৃণমূলের হয়ে ভোটে দাঁড়াতে ভয় পাবেন বর্তমান বিধায়করা বলে চাঞ্চল্যকর অভিযোগ তুললেন বিজেপি নেত্রী ভারতী ঘোষ। সূত্রের খবর, সোমবার হুগলির কোন্নগরে বিজেপির মহিলা মোর্চার একটি অনুষ্ঠানে এই ধরনের বিস্ফোরক মন্তব্য করেন প্রাক্তন এই আইপিএস অফিসার। এদিন ভারতী ঘোষ বলেন, “এখন আর ভদ্রসভ্য মানুষেরা তৃণমূল করতে পারছেন না। তাঁরা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দলের টিকিটে দাঁড়াতেও চাইছেন না। তৃণমূলে এখন তাঁরাই সক্রিয় যাঁদের সাইকেল কেনার ক্ষমতা ছিল না, অথচ তাঁরা স্করপিও চড়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে। ভদ্রসভ্য লোকেরা এখন দলে সাইড হয়ে গিয়েছেন।”

বস্তুত, এককালে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে মা বলে ডাকলেও তৃণমূলের সংসর্গ ত্যাগ করে বিজেপিতে আসার পর থেকেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও তাঁর দলের বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন ভারতী ঘোষ। এর আগে এই প্রাক্তন আইপিএস অফিসার বলেছিলেন, পুলিশকে শিখণ্ডীর মতো সামনে রেখে সরকার চালাচ্ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

একদিনের জন্য পুলিশ তুলে নিলেই সরকার পড়ে যাবে। এবার তিনি ২০২১-এ বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলের ভরাডুবির ভবিষ্যদ্বাণী করলেন। তিনি বলেন, “এবার তৃণমূল হারছেই। তৃণমূলের হয়ে কেউ দাঁড়াতেই চাইবেন না, তাহলে তৃণমূল জিতবে কী করে! তৃণমূল ইতিমধ্যেই বাংলা থেকে বিলুপ্ত হয়ে গিয়েছে। তাই এখন বিজ্ঞাপন দিয়ে বলতে হচ্ছে ‘দিদিকে বলো।”

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, এর আগে কাটমানি ইস্যু সামনে আসায় মুখ পুড়েছে তৃণমূল কংগ্রেস তথা তৃণমূল কংগ্রেস সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। এবার ‘দিদিকে বলো’ কর্মসূচিতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিশানা করে ভারতী ঘোষ বলেন, “আপনার সময় শেষ হয়ে গিয়েছে, এবার দিন গুনতে শুরু করুন। ২০২১-এর ভোটেই তৃণমূল সরকারের অবসান ঘটবে।” সব মিলিয়ে তৃনমূলের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক ভারতী ঘোষ।

Top
error: Content is protected !!