এখন পড়ছেন
হোম > 2019 > June (Page 2)

শোভন-তৃণমূল সম্পর্কের জট ছাড়াতে এবার কি আসরে মুখ্যমন্ত্রী, শোভন ঘনিষ্ঠদের সাথে নেত্রীর বৈঠক ঘিরে জল্পনা

বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে তাঁর ব্যক্তিগত ঘনিষ্ঠতার জেরে মন্ত্রিত্ব পদ খোয়াতে হয় বেহালা পূর্ব বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়ক শোভন চট্টোপাধ্যায়কে। এমনকি কলকাতা পৌরসভার মেয়র পদ থেকেও তাকে সরিয়ে দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর তারপরই ক্রমশ দলের সঙ্গে দূরত্ব বাড়তে থাকে সেই শোভনবাবুর। সম্প্রতি তৃণমূলের এই হেভিওয়েট বিধায়কের বিজেপি যোগের জল্পনা তীব্র থেকে তীব্রতর হতে

দুর্নীতির অভিযোগ তুলে ইস্তফা পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার কথা ঘোষণা করলেন দিলীপ, জেনে নিন বিস্তারিত

লোকসভা নির্বাচনের পর তৃনমূলের ঘর ভাঙতে শুরু করেছে। একের পর এক জনপ্রতিনিধিরা গেরুয়া শিবিরে নাম লেখাচ্ছেন। যার জেরে প্রবল অস্বস্তিতে পড়েছে শাসক দল। এদিকে দলের এই ভাঙান রুখবার জন্য গোষ্ঠী কোন্দল বন্ধ করার বার্তা দিয়েছে তৃণমূল শীর্ষ নেতৃত্ব। কিন্তু তাতেও অবস্থার কোনো পরিবর্তন হয়নি। সূত্রের খবর, এবার বাঁকুড়া পৌরসভার পুর প্রধানের

নেত্রীকে জড়িয়ে কাটমানি নিয়ে বিস্ফোরক অভিযোগ মুকুল রায়ের, জেনে নিন

এক সময় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিশ্বস্ত সঙ্গী ছিলেন তিনি। তার চাণক্য বুদ্ধিতেই একের পর এক নির্বাচন বৈতরণী পার করেছে তৃণমূল বলে দাবি বিশ্লেষকদের। আর এহেন মুকুল রায় বেশ কিছুদিন হল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অস্বস্তি বাড়িয়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। আর বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর থেকেই তৃণমূলকে কবে এই রাজ্য থেকে গনতান্ত্রিক ভাবে সরানো

নজিরবিহীন ঘটনা! তৃণমূলের পাশে দাঁড়াল বিজেপি, জেনে নিন বিস্তারিত

রাজনীতিকে তারা একে অন্যের শত্রু হলেও এবার সদ্য মুসলিম থেকে হিন্দু হওয়া তৃণমূল সাংসদ নুসরাত জাহানের পাশে দাঁড়ালেন বিজেপির সাধ্বী প্রাচী এবং দেবশ্রী চৌধুরী। প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগেই লোকসভায় শপথ নিতে আসেন বসিরহাটের এই তৃণমূল সাংসদ। যেখানে নুসরত জাহানকে সদ্যবিবাহিতা সাজে বেগুনি পাড় সাদা শাড়ি, হাতে চুরা এবং সিঁথিতে সিঁদুর পড়ে শপথ

পাপের প্রায়শ্চিত্ত করতে হচ্ছে তৃণমূল থেকে আসা এই বিজপির এই হেভিওয়েট নেতাকে, কেন! জেনে নিন

এক সময় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিশ্বস্ত সঙ্গী ছিলেন তিনি। তার চাণক্য বুদ্ধিতেই একের পর এক নির্বাচন বৈতরণী পার করেছে তৃণমূল বলে দাবি বিশ্লেষকদের। আর এহেন মুকুল রায় বেশ কিছুদিন হল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অস্বস্তি বাড়িয়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। আর বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর থেকেই তৃণমূলকে কবে এই রাজ্য থেকে গনতান্ত্রিক ভাবে সরানো

নারদ কাণ্ডে চাপ বাড়াচ্ছে তদন্তকারী সংস্থা, , নথি জমা দেওয়ার নির্দেশ প্রাক্তন মেয়র পত্নীকে

কলকাতা পৌরসভার প্রাক্তন মেয়র তথা বর্তমান তৃণমূল বিধায়ক শোভন চট্টোপাধ্যায়ের রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ নিয়ে যখন সব মহলে জল্পনা চলছে, ঠিক তখনই এবার সেই শোভন চট্টোপাধ্যায়ের পত্নী রত্না চট্টোপাধ্যায়কে জেরা করতে তৎপর কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট। কিন্তু হঠাৎ ইডির এই তৎপরতা কেন! সূত্রের খবর, শোভন চট্টোপাধ্যায় এবং তার স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায়ের ছেলে

সরকারি কর্মীদের জন্য সুখবর, চালু হতে চলেছে সপ্তম পে কমিশন

দীর্ঘদিন ধরেই বেতন বৃদ্ধি সহ একগুচ্ছ বিষয়ে সরকারি কর্মীরা তাদের দাবি-দাওয়া জানিয়ে আসছেন। আর এবার অবশেষে এই ব্যাপারে বড় সিদ্ধান্ত নিতে চলেছে কেন্দ্রের মোদি সরকার। জানা গেছে, আগামী 5 জুলাই দ্বিতীয় ইনিংসে মোদি সরকার ক্ষমতায় আসার পর আর্থিক বাজেট পেশ হতে চলেছে। আর সেখানেই আর্থিক ক্ষেত্রে বড় কিছু ঘোষণা করতে

তৃণমূলকে দু দিক থেকে চাপ বাড়াতে ছক তৈরি মাস্টারমাইন্ড মুকুল রায়ের,জেনে নিন 

তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদানের পরই প্রাক্তন দল তৃণমূল কংগ্রেস এবং প্রাক্তন নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কার্যত ঘুম উড়িয়ে দিয়েছেন বঙ্গ বিজেপির হেভিওয়েট নেতা মুকুল রায়। এমনকি মুকুলবাবুর হাত ধরেই সদ্যসমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলের ভরাডুবি এবং বিজেপির উত্থান ঘটেছে এই বাংলায়। আর লোকসভা নির্বাচনের পরই শাসক দল ভেঙে একের পর এক জনপ্রতিনিধিদের গেরুয়া

ফিরছে বিপ্লব, তৃণমূলের ঘর ভাঙতে মরিয়া বিজেপি, তৈরি অর্পিতা, যুদ্ধের অপেক্ষায় বালুরঘাটবাসী

অনেকে বলতেন, সারা রাজ্যের সিএম অর্থাৎ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় শেষ কথা হলেও দক্ষিণ দিনাজপুরের শেষ কথা বিএম অর্থাৎ বিপ্লব মিত্র। আর এবার সেই দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা তৃণমূলের প্রাক্তন সভাপতি বিপ্লব মিত্র গত সোমবার দিল্লিতে বিজেপির সদর দপ্তরের দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা পরিষদের সভাধিপতি সহ 10 জন সদস্যকে নিয়ে গেরুয়া শিবিরে যোগদান করার

ভাবমূর্তি ফের স্বচ্ছ করতে নেত্রীকে চার নেতা-মন্ত্রীকে “নিষ্ক্রিয়” করার পরামর্শ প্রশান্ত কিশোরের, জোর সোরগোল

এবারের লোকসভা নির্বাচনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় 42 এ 42 এর স্লোগান দিলেও তার সেই স্লোগান পূর্ণ হয়নি। উল্টে বিজেপি এই রাজ্য থেকে 18 টির মতো আসন দখল করে তৃণমূলের ঘাড়ে নিশ্বাস ফেলতে শুরু করেছে। আর দলের এই খারাপ ফলাফলের পরই দলীয় স্তরে একাংশ নেতা, মন্ত্রীর দুর্নীতিই যে প্রধান ভাবে দায়ী তা

Top
error: Content is protected !!