এখন পড়ছেন
হোম > 2019

তৃণমূল নেত্রীর বৈঠকে ডাক পাবেন কারা! তীব্র জল্পনা শুরু শাসকদলের অন্দরেই!

  আর কিছুক্ষণের অপেক্ষা। তারপরেই মালদহে প্রশাসনিক বৈঠক করতে আসবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ইতিমধ্যেই রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধানের এই মালদহ আগমনকে ঘিরে জেলা প্রশাসনের মধ্যে চূড়ান্ত তৎপরতা লক্ষ্য করা গেছে। তবে জেলা প্রশাসনের পাশাপাশি মালদহ জেলা তৃণমূলের নেতা-নেত্রীরা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই সফরকে ঘিরে বাড়তি প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছেন। কেননা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই প্রশাসনিক

এবার রাজ্য সরকারের সঙ্গে রাজ্যপালের বিরোধ সংসদে তুলতে চলেছে তৃণমূল! বাড়ছে জল্পনা

  জাগদীপ ধনকার বাংলার রাজ্যপাল হওয়ার পর থেকেই রাজ্য সরকারের সঙ্গে তার বিভিন্ন ক্ষেত্রে দূরত্ব তৈরি হয়েছে। যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শুরু করে জিয়াগঞ্জের ঘটনা, দুর্গাপুজোর কার্নিভাল থেকে শুরু করে প্রশাসনিক বৈঠক, বিভিন্ন ক্ষেত্রে সরকারের বিরুদ্ধে মন্তব্য করে শোরগোল তুলে দিয়েছিলেন তিনি। যার পরিপ্রেক্ষিতে তৃণমূলের পক্ষ থেকে বিভিন্ন সময়ে সেই রাজ্যপালকে "পদ্মপাল"

পঞ্চানন বর্মা থেকে স্বপ্না বর্মন! কালিয়াগঞ্জ দখলে কোনো “সিড়িকেই” ছাড়তে নারাজ তৃণমূল

  কংগ্রেসিদের আঁতুড়ঘর হিসেবে পরিচিত উত্তর দিনাজপুর জেলা। গত 2016 সালে কালিয়াগঞ্জ বিধানসভায় জয়যুক্ত হন কংগ্রেসের বিধায়ক প্রমথনাথ রায়। কিন্তু তিনি পরলোকগমন করার ফলে তার ছেড়ে যাওয়া এই কেন্দ্রে আগামী 25 নভেম্বর উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। যেখানে সমস্ত রাজনৈতিক দলগুলোই এই কেন্দ্র দখল করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল পর্যদস্তু হওয়ার পর

কোন পথে বাজিমাত? দলীয় নেতাদের সেই “জাদুমন্ত্র” বুঝিয়ে দিলেন ফিরহাদ হাকিম

  লোকসভা নির্বাচনে আশ্চর্যজনকভাবে বিজেপির ভোটব্যাংক রাজ্যে অনেকটাই বৃদ্ধি পেয়েছে। আর সদ্যসমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি বাংলা থেকে 18 টি আসন দখল করার পর বিধানসভার আগে তারা চেয়েছিল কলকাতা পৌরসভা দখল করতে। সেই মত বর্তমানে নানা প্রস্তুতিও শুরু করেছে তারা। তৃণমূল পরিচালিত কলকাতা পৌরসভার বিরুদ্ধে যে কোনো ইস্যু পেলেই তেড়ে-ফুঁড়ে ময়দানে নামতে

ভোট বড় বালাই! দিদিকে বলোতে এবার কৃষকের জমির আগাছাও পরিষ্কার করছে তৃণমূল!

  লোকসভা নির্বাচনের পর সাধারণ মানুষের সঙ্গে নিবিড় সম্পর্ক গড়ে তুলতে তৃণমূলের রণনীতিকার প্রশান্ত কিশোর "দিদিকে বলো" কর্মসূচি দেন তৃণমূল কংগ্রেসকে। যার মাধ্যমে বর্তমানে গোটা তৃণমূল দল এই কর্মসূচিকে নিয়ে সাধারণ মানুষের কাছে কাছে পৌঁছে যাচ্ছে। আর এবার আলিপুরদুয়ারে এই "দিদিকে বলো" কর্মসূচির পাশাপাশি তৃণমূলের কৃষক সেল কিষান খেতমজুর সংগঠন কৃষকদের

সদরে না করে দাপুটে বিজেপি নেতার খাসতালুকে প্রশাসনিক বৈঠক করেই কি গুরুত্ব বোঝাচ্ছেন মমতা?

  দক্ষিণ দিনাজপুরে তৃণমূল চালাতে একসময় মমতা বন্দোপাধ্যায়ের ভরসা ছিল বর্তমান বিজেপি নেতা বিপ্লব মিত্র। তবে সদ্যসমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনের বালুরঘাট লোকসভা কেন্দ্রে অর্পিতা ঘোষ পরাজিত হওয়ার পর সেই বিপ্লব মিত্রকে জেলা তৃণমূল সভাপতি পদ থেকে সরিয়ে দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর এর পরেই দীর্ঘদিনের নেত্রীর সংসর্গ ত্যাগ করে দিল্লিতে বিজেপির সদর দপ্তরে গিয়ে

রাজ্যে এবার পুরভোটের দামামা বেজে উঠল!পুরভোটের কারণে এবার তৃণমূল দলে নতুন পদক্ষেপ

রাজ্যে উপনির্বাচনের ঘোষণার পরেই এবার পুরভোটের দামামা বাজল। আগামী বছরের মার্চ, এপ্রিল, মে মাস জুড়ে রাজ্যে পুরসভার নির্বাচন হবে বলে মনে করা হচ্ছে। উপ নির্বাচনের পর পুরভোটে বিজেপি আসন দখল করার জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছে। অন্যদিকে তৃণমূল ভোট কৌঁসুলি প্রশান্ত কিশোরের পরিকল্পনা অনুযায়ী বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করতে শুরু করেছে। আর

ট্যাগড

রাজ্য সরকার ত্রাণ থেকে ভোটের ফান্ড জোগাড় করছে! ভয়ঙ্কর অভিযোগ রাজ্য বিজেপি নেতৃত্বের

বিগত কয়েকদিন যাবত বুলবুল সংক্রান্ত ব্যাপারে তৃণমূল সরকার কেন্দ্রীয় সরকারের প্রতি সমালোচনায় মুখর হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী কেন্দ্রীয় সরকারের প্রতি অভিযোগ করেছেন ত্রাণ নিয়ে। অন্যদিকে, কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল এলাকা পর্যবেক্ষণ করে রিপোর্ট দিলেই রাজ্য সরকারকে টাকা পাঠানো হবে। কিন্তু কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর আসায় রাজ্যের তরফ থেকে তৃণমূল

এবার দলীয় ‘ময়নাতদন্তে’ অনুব্রত মন্ডল, শাস্তির ভয়ে থরহরিকম্প তৃণমূলের নিচুতলার নেতা-কর্মীরা!

2019 এর লোকসভা ভোটের পর তৃণমূল দল যথেষ্ট সাবধানী হয়ে উঠেছে। পরিকল্পনামাফিক তৃণমূল মেপে মেপে রাজনৈতিক ময়দানে পা ফেলছে। ইতিমধ্যে তৃণমূলের সমস্ত রাজনৈতিক খসড়া তৈরি করছে ভোট কৌঁশলী প্রশান্ত কিশোর। আর প্রশান্ত কিশোরের পরিকল্পনা অনুযায়ী তৃণমূল প্রতিটি দায়িত্ব পালন করছে। সেই অনুযায়ী এবার বীরভূম জেলা জুড়ে শুরু হচ্ছে বিধানসভা ভিত্তিক

পুড়ল বিজেপির দলীয় পতাকা, বিক্ষোভ-অবরোধে উত্তাল কালিয়াগঞ্জ, ক্রমশ চড়ছে উত্তেজনার পারদ

  হাতে আর মাত্র কিছুদিন বাকি। তারপরেই কালিয়াগঞ্জ বিধানসভা উপনির্বাচন। প্রশাসন থেকে শুরু করে সমস্ত রাজনৈতিক দল, প্রায় সকলেই চাইছে সুষ্ঠুভাবেই হোক এই নির্বাচন। কিন্তু বাংলায় নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হবে, এমন ধারণা প্রায় কম লোকেরই আছে। তবে তিন বিধানসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচন শান্তিপূর্ণ হবে হবে বলেই মনে করেছিল একাংশ। কিন্তু এবার কালিয়াগঞ্জ বিধানসভা

Top
error: Content is protected !!