এখন পড়ছেন
হোম > 2018 > January

‘গদ্দার’ মুকুল রায় দলে নেই, তাও তিনমাসের মধ্যে জাতীয়দলের মর্যাদা খোয়াবে তৃণমূল!

একসময় রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের অঘোষিত দুনম্বর নেতা ছিলেন মুকুল রায়। কিন্তু দলের শীর্ষনেতৃত্ত্বের সাথে রাজনৈতিক মতাদর্শগত বিভেদ সৃষ্টি হওয়ায় তিনি তৃণমূল কংগ্রেস ত্যাগ করে বিজেপিতে যোগ দেন। আর তিনি দল ছাড়ার পরেই তৃণমূল যুব কংগ্রেস সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বা মুকুল রায়ের অনুপস্থিতিতে দলের তরফে ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চলের দায়িত্ত্বপ্রাপ্ত নেতা অর্জুন

এবার তৃণমূল কংগ্রেসে ‘যোগ দিলেন’ বিধানসভার বিরোধী দলনেতা আব্দুল মান্নান

গত ২০১৬ বিধানসভা নির্বাচনে এক লড়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্ত্বাধীন তৃণমূল কংগ্রেস গোটা রাজ্যে ২১১ টি আসন পায়। আর তারপরেই অন্যান্য বিরোধী দল থেকে মুখ্যমন্ত্রীর 'উন্নয়নের জোয়ারে' আস্থা রেখে একে একে শাসকদলে 'বেসরকারিভাবে' যোগ দেন বহু বিধায়ক। বেসরকারিভাবে এই জন্যই, যে প্রকাশ্যে এঁদের শাসকদলে যোগ দিতে দেখা গেছে, দেখা গেছে শাসকদলের

কি হতে চলেছে ২০২১ এর হিসেব? কোন অঙ্কে কে দখল করতে পারে বাংলার মসনদ?

২০২১ এর প্রশ্নে এখনই জল মাপতে শুরু করেছে সমস্ত রাজনৈতিক দল । এগ্রিকালচারাল বিশেষণে যদি বর্তমান পরিস্থিতির বিশ্লেষণ করতে বলেন, বলতে পারি রাজনৈতিক উর্ব্বর জমির যত্ন নিচ্ছে তৃণমূল, ছড়াচ্ছে কীট নাশক, বাঁজা জমিকে চাষযোগ্য বানানোর চেষ্টা চালাচ্ছে বাম, চাষের জমি খুঁজছে বিজেপি এবং নিজের জমিতে উচ্ছে বসিয়ে বামের বাঁজা জমি

গ্রাসরুট ওপিনিয়ন পোল: কি হতে চলেছে উলুবেড়িয়ার সাম্ভাব্য ফলাফল?

উলুবেড়িয়া লোকসভার এক্সিট পোল গ্রাসরুট ওপিনিয়ন পোল (GROP) স্যাম্পেল গ্রহণের সময় – ২৯/০১/২০১৮ তারিখে সকাল ৯ টা থেকে বিকেল ৩ টে। উলুবেড়িয়ার সাম্ভাব্য ফলাফল - সাম্ভাব্য জয়ী – তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী – সাজদা আহমেদ সাম্ভাব্য ব্যবধান – ৩,২৫,০০০ – ৩,৬৪,০০০ সাম্ভাব্য দ্বিতীয় – বিজেপি সাম্ভাব্য ভোট শতাংশ তৃণমূল কংগ্রেস – ৫০% বিজেপি – ২০% বামফ্রন্ট – ১৮% কংগ্রেস – ০৯% নোটা ও অন্যান্য

গ্রাসরুট ওপিনিয়ন পোল: কি হতে চলেছে নোয়াপাড়ার সাম্ভাব্য ফলাফল?

নোয়াপাড়া বিধানসভার এক্সিট পোল গ্রাসরুট ওপিনিয়ন পোল (GROP) স্যাম্পেল গ্রহণের সময় – ২৯/০১/২০১৮ তারিখে সকাল ৯ টা থেকে বিকেল ৩ টে। নোয়াপাড়ার সাম্ভাব্য ফলাফল - সাম্ভাব্য জয়ী – তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী – সুনীল সিং সাম্ভাব্য ব্যবধান – ৫২,৭০০ – ৫৬,২০০ সাম্ভাব্য দ্বিতীয় – বামফ্রন্ট সাম্ভাব্য ভোট শতাংশ তৃণমূল কংগ্রেস – ৪৮% বামফ্রন্ট – ২২% বিজেপি – ১৯% কংগ্রেস – ০৯% নোটা ও অন্যান্য

‘গ্রাসরুট ওপিনিয়ন পোলের’ নোয়াপাড়া ও উলুবেড়িয়া এক্সিট পোল

নোয়াপাড়া বিধানসভা ও উলুবেড়িয়া লোকসভার এক্সিট পোল গ্রাসরুট ওপিনিয়ন পোল (GROP) স্যাম্পেল গ্রহণের সময় – ২৯/০১/২০১৮ তারিখে সকাল ৯ টা থেকে বিকেল ৩ টে। প্রথমে আমরা দুই কেন্দ্রের মানুষের কাছেই কিছু প্রশ্ন রাখি, দুটি কেন্দ্রের মানুষের উত্তর একত্রিত ভাবে বর্ণনা করা হল - ১. তৃণমূল সরকার ৭ বছরে কেমন কাজ করেছে? খুব ভালো – ২১% ভালো

উলুবেড়িয়া উপনির্বাচন: প্রিয়বন্ধু মিডিয়ার এক্সক্লুসিভ এক্সিট পোল

২০১৪ লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ সুলতান আহমেদের মৃত্যুতে উলুবেড়িয়া লোকসভায় উপনির্বাচন হয়ে গেল গত ২৯ জানুয়ারী। এবার সেখানে বহুমুখী লড়াই হয়েছে। এই উপনির্বাচনে প্রার্থী হয়েছেন চার প্রধান রাজনৈতিক দলের প্রার্থী হয়েছিলেন যথাক্রমে ১. তৃণমূল কংগ্রেসের সাজদা আহমেদ ২. বিজেপির অনুপম মল্লিক ৩. সিপিএমের সাবিরউদ্দিন মোল্লা ৪. কংগ্রেসের সেখ মোদাসের হোসেন ওয়ারসী আরো খবর পেতে

নোয়াপাড়া উপনির্বাচন: দেখে নিন প্রিয়বন্ধু মিডিয়ার এক্সক্লুসিভ এক্সিট পোল

২০১৬ বিধানসভা নির্বাচনে বাম সমর্থিত কংগ্রেস বিধায়ক মধুসূদন ঘোষের মৃত্যুতে নোয়াপাড়া বিধানসভায় উপনির্বাচন হয়ে গেল। এবার সেখানে চতুর্মুখি লড়াই হয়েছে। এই উপনির্বাচনে প্রার্থী হয়েছিলেন - ১. তৃণমূল কংগ্রেসের সুনীল সিং ২. বিজেপির সন্দীপ ব্যানার্জী ৩. সিপিএমের গার্গী চ্যাটার্জী ৪. কংগ্রেসের গৌতম বোস আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে ভোট পরবর্তীকালে আমাদের পর্যবেক্ষক দল নোয়াপাড়া ঘুরে

বিজেপিতে যোগ দিলেন প্রাক্তন বিধায়ক,চরম অস্বস্তিতে শাসকদল

সামনেই ত্রিপুরাতে বিধানসভা নির্বাচন। আর তার আগেই সিপিএমের প্রাক্তন বিধায়ক মনোরঞ্জন আচার্জ আজ বিজেপিতে যোগ দিলেন। ফলে বড়সড় দক্ষ খেলো শাসকদল তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।তবে স্বাভাবিকভাবেই খুশি বিজেপি। মনোরঞ্জনবাবু বিজেপিতে যোগ দেওয়ায় ত্রিপুরাতে বিজেপির শক্তি আরো বাড়লো বলে মনে করছে তারা।মনোরঞ্জনবাবুকে বিজেপি সিপিএমের বিপক্ষে দাঁড় করবে বলেই জানা

নোয়াপাড়া উপনির্বাচন: প্রিয়বন্ধু মিডিয়ার এক্সক্লুসিভ এক্সিট পোল

২০১৬ বিধানসভা নির্বাচনে বাম সমর্থিত কংগ্রেস বিধায়ক মধুসূদন ঘোষের মৃত্যুতে নোয়াপাড়া বিধানসভায় উপনির্বাচন হয়ে গেল। এবার সেখানে চতুর্মুখি লড়াই হয়েছে। এই উপনির্বাচনে প্রার্থী হয়েছিলেন - ১. তৃণমূল কংগ্রেসের সুনীল সিং ২. বিজেপির সন্দীপ ব্যানার্জী ৩. সিপিএমের গার্গী চ্যাটার্জী ৪. কংগ্রেসের গৌতম বোস আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে ভোট পরবর্তীকালে আমাদের পর্যবেক্ষক দল নোয়াপাড়া ঘুরে

Top
error: Content is protected !!