এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > সমস্যার কথা জানাতে গিয়ে তৃণমূলী চেয়ারম্যানের ভাইদের হাতে মার খেয়ে ক্ষোভ দুই মহিলার

সমস্যার কথা জানাতে গিয়ে তৃণমূলী চেয়ারম্যানের ভাইদের হাতে মার খেয়ে ক্ষোভ দুই মহিলার

নিজেদের বাড়িতে জল ঢোকায় পুরসভার চেয়ারম্যানের কাছে সমস্যার সমাধান চাইতে গিয়েছিলেন। কিন্তু সমাধানের বদলে কপালে যে মার লেখা ছিল তা কোনোরকমেই কল্পনাও করতে পারেননি জলপাইগুড়ির দেশবন্ধুপাড়ার বাসিন্দা মন্দ্রিকা রায় এবং বীনাদেবী রায়। সূত্রের খবর, বেশ কিছুদিন আগে পুর চেয়ারম্যান মোহন বসু একটি ঘরের ব্যবস্থা করে দিলে সেখানে গত দুদিন বৃষ্টির জল ওঠায় সেই চেয়ারম্যানের সাথেই দেখা করে সমস্যা সমাধানের দাবি জানাতে গিয়েছিলেন ওই দুই স্থানীয় বাসিন্দা। কিন্তু চেয়ারম্যানের দুই ভাই উত্তম বসু ও গৌতম বসু মিলে তাঁদের উপর বিনা প্ররোচনায় চড়াও হন বলে অভিযোগ। এদিকে মা বীনাদেবী রায় ও কাকিমা মন্দ্রিরা রায়ের ওপর এই হামলার পরিপ্রেক্ষিতে মন্টু রায় বলেন, সমস্যার কথা জানাতে গেলে মা ও কাকিমার হাতে ও মাথায় মেরেছে চেয়ারম্যানের ভাইয়েরা।

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

যদিও চেয়ারম্যান এ ব্যাপারে কোনো মন্তব্য না করলেও তাঁর ভাইদের পক্ষ থেকে এ ঘটনা সম্পূর্ন অস্বীকার করা হয়েছে। চেয়ারম্যান মোহন বসুর ভাই গৌতম বসু সেই মহিলাদের দিকেই অভিযোগের আঙুল তুলেছেন। তিনি বলেন, ঘরে জল ঢুকেছে বলে চেয়ারম্যানের বাড়িতে এসে ওনারাই অশ্লীল মন্তব্য করেছিলেন। তাই বাড়ির দুই মহিলা ওদেরকে বের করে দিয়েছে। মারধরের যে অভিযোগ ওনারা করছেন তা সম্পূর্নই ভিত্তিহীন। এদিকে চেয়ারম্যানের দুই ভাইয়ের বিরুদ্ধে থানায় একটি অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ সম্পূর্ণ ঘটনা খতিয়ে দেখছে বলে জানান কোতোয়ালি থানার আইসি বিশ্বাশ্রয় সরকার। অন্যদিকে, চেয়ারম্যানের দুই ভাইও পাল্টা ওই দুই মহিলার বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করার চিন্তাভাবনা করছেন বলে জানা গেছে। স্থানীয় সূত্রের খবর, আক্রান্ত মন্দ্রিকা রায় ও বীনাদেবী রায় দুজনেই জলপাইগুড়ি সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। সব মিলিয়ে জনপ্রতিনিধির কাছে সমস্যার সমাধান চাইতে গিয়ে দুই মহিলার আক্রান্ত হওয়ার ঘটনায় হতবাক এলাকার বাসিন্দারা, এই নিয়ে চাপা ক্ষোভও সৃষ্টি হয়েছে স্থানীয় মহলে বলে সূত্রের খবর।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!