এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > 100 দিনের কাজে কোটি কোটি টাকা নয়ছয়ের অভিযোগ, টাকা ফেরতের নির্দেশ কেন্দ্রীয় গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রকের

100 দিনের কাজে কোটি কোটি টাকা নয়ছয়ের অভিযোগ, টাকা ফেরতের নির্দেশ কেন্দ্রীয় গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রকের

Priyo Bandhu Media

লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলের ভরাডুবি হওয়ার পরই সরকারি প্রকল্পে নেতাদের একাংশের কাঠমানি খাওয়ার জন্যেই অনেক জায়গায় দলের ফলাফল খারাপ হয়েছে বলে শাসকদলের ফলাফল পর্যালোচনা বৈঠকে সেই কারণ উঠে এসেছে। যার জেরে স্বয়ং তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সকলকে এই ব্যাপারে সতর্ক করে দিয়েছেন।

এমনকি কেউ যদি দুর্নীতির সঙ্গে যুক্ত হন, তাহলে তাকেও দল থেকে বের করে দেওয়া হবে বলেও জানিয়ে দিয়েছেন তিনি। কিন্তু এবার 100 দিনের কাজে কোটি কোটি টাকা তছরুপের অভিযোগ উঠল হুগলি জেলার বেশ কিছু গ্রাম পঞ্চায়েতের বিরুদ্ধে।

জানা গেছে, এই জেলার পোলবা দাদপুর ব্লকের রাজহাট, সাটিথান, ধনিয়াখালীর বেলমুড়ি পঞ্চায়েত এবং বলাগড়ের সোমড়া গ্রাম পঞ্চায়েতের মোট তিন কোটি এক লক্ষ টাকার অসঙ্গতি ধরা পড়েছে। গত 22 থেকে 24 জানুয়ারী কেন্দ্রীয় গ্রামোন্নয়ন দপ্তর থেকে এখানকার বেশকিছু গ্রাম পঞ্চায়েতে 100 দিনের কাজের প্রকল্প সমীক্ষা চালানো হলে সেখানেই এই আর্থিক সঙ্গতি ধরা পড়ে। আর এরপরই কেন্দ্রের পক্ষ থেকে রাজ্য পঞ্চায়েত দপ্তরের কাছে টাকা চাওয়া হয়।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

এদিকে এই ঘটনায় পঞ্চায়েত স্তরে 100 দিনের কাজ দেখাশোনা করা নির্মাণ সহায়কদের বিরুদ্ধেই অভিযোগ উঠতে শুরু করেছে। তবে লক্ষ্যমাত্রা বেধে দেওয়াতে এবং তা সময়মতো না হওয়াতেই এই ঘটনা ঘটেছে বলে দাবি করে আজ হুগলি জেলার এডিএম প্রলয় মজুমদারকে একটি ডেপুটেশন দিয়েছেন সেখানকার সমস্ত নির্মাণ সহায়করা।

এদিকে এই প্রসঙ্গে হুগলি জেলা পরিষদের সভাধিপতি মেহেবুব রহমান বলেন, “উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে কেন্দ্রীয় সরকার প্যাচে ফেলতেই এই সমীক্ষা করেছে।” অন্যদিকে এই কাজে কোনো ধরনের দুর্নীতি হয়নি বলে জানিয়ে দিয়েছেন জেলা পরিষদের কৃষি কর্মাধ্যক্ষ মনোজ চক্রবর্তী।

এদিকে এই প্রসঙ্গে চুঁচুড়ার তৃণমূল বিধায়ক অসিত মজুমদার বলেন, “কেন্দ্রীয় সরকারের কথায় ব্যবস্থা গ্রহণ ঠিক নয়। জেলাশাসক তদন্ত করলেই সত্য ঘটনা সামনে আসবে।” সব মিলিয়ে এবার 100 দিনের কাজে কোটি কোটি টাকা নয়ছয়ের অভিযোগে কেন্দ্রীয় গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রকের তরফ থেকে সেই টাকা ফেরতের নির্দেশ দেওয়ায় তীব্র চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হল।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!