এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > ১০০ দিনের কাজের পর মোদীর হাত ধরেই আরো বড় স্বীকৃতি জুটল মমতার সরকারের

১০০ দিনের কাজের পর মোদীর হাত ধরেই আরো বড় স্বীকৃতি জুটল মমতার সরকারের

প্রধানমন্ত্রী গ্রাম সড়ক যোজনায় কেন্দ্রের তরফ থেকে এবার মোট ৮৪২ কোটি টাকা উৎসাহ ভাতা পেলো মোট ১২ টি রাজ্য। যার মধ্যে পরচিম্বঙ্গ রয়েছে চতুর্থ স্থানে। জানা গেছে মোট ১২ টি রাজ্যের মধ্যে রাজস্থান পেয়েছে সবথেকে বেশি ২৩০ কোটি, তারপর মধ্যপ্রদেশ পেয়েছে ২১৯ কোটি, ভাতা প্রাপ্তির তৃতীয় স্থানে রয়েছে ওডিশা, মিলেছে ১০৯ কোটি, এরপর বাংলা পেয়েছে ৫৮.৩৫ কোটি এবং অন্ধ্রপ্রদেশ পেয়েছে ৫২ কোটি। এছাড়াও ঝাড়খন্ড, হিমাচলের প্রাপ্ত ভাতাও উল্লেখযোগ্য। জানা গেছে গ্রামের পাকা রাস্তা তৈরির উদ্দেশ্যেই এই প্রধানমন্ত্রী গ্রাম সড়ক যোজনা প্রকল্পটি নেওয়া হয় ২০০০-এর বাজপেয়ী আমলে। এরপর কংগ্রেসের মাধ্যমে ইউপিএ জমানাতেও প্রকল্পটি চালু থাকে। এই বিষয় এক কর্তা তাঁর অভিমত প্রকাশ করে বলেন, “এখন কেন্দ্র তৈরি রাস্তার রক্ষণাবেক্ষণের কাজ দেখতে দিল্লির প্রতিনিধি পাঠায়। তাঁদের রিপোর্টের ভিত্তিতেই উত্‍সাহভাতা দেওয়া শুরু হয়।” রাজ্য ক্ষমতায় আসার পর তৃণমূল সরকার মোট ৮৮৮৯ কিমি রাস্তা রক্ষনাবেক্ষনের দায়িত্ব নেয়। রাজ্য পঞ্চায়েত দফতর থেকে জানা যায় এর মধ্যে প্রায় ৭৮১২ কিমি রাস্তা সম্পূর্ণভাবে মেরামত করা হয়েছে, কাজ চলছে ১০৭৭ কিমি রাস্তা মেরামতের। এছাড়াও আরো ২১৯ টি পুরোনো রাস্তা সংস্কারের দায়িত্ব নেয় রাজ্য। পঞ্চায়েতের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মী সত্যব্রত চক্রবর্তী এ বিষয় হিসাব দিয়ে বলেন, “গত কয়েক বছরে রাস্তা মেরামতির জন্য রাজ্য ৭০৮ কোটি ৩১ টাকা খরচ করেছে।” এদিন পঞ্চায়েত মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় আত্মবিশ্বাসের সুরে জানান, ”কাজ করলে ফল মেলে। তার স্বীকৃতি কেন্দ্রকে দিতেই হবে। ১০০ দিনের কাজে আমরা দেশের সেরা, গ্রামেগঞ্জে রাস্ত তৈরিতেও উত্‍সাহভাতা দিল কেন্দ্র। এখন তো দেখছি নরেন্দ্র মোদীই আমার হয়ে পঞ্চায়েত ভোট করছেন। আমরা শুধু দিল্লির সার্টিফিকেট দেখিয়ে বলব পদ্মফুলে নয়, জোড়াফুলে ভোট দিন।” সূত্রের খবর অনুযায়ী এমনটাই জানা গেছে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!